Language Switcher:

Cart empty

বাউল

বাউল (Baul) একটি বিশেষ লোকাচার ও ধর্মমত। এই মতের সৃষ্টি হয়েছে বাংলার মাটিতে। বাউলকূল শিরোমণি লালন সাঁইয়ের গানের মধ্য দিয়ে বাউল মত পরিচতি লাভ করে। বাউল গান যেমন জীবন দর্শনে সম্পৃক্ত তেমনি সুর সমৃদ্ধ। বাউলদের সাদামাটা কৃচ্ছসাধনার জীবন আর একতারা বাজিয়ে গান গেয়ে গ্রামে গ্রামে ঘুরে বেড়ানোই তাদের অভ্যাস। ২০০৫ সালে ইউনেস্কো বিশ্বের মৌখিক এবং দৃশ্যমান ঐতিহ্যসমূহের মাঝে বাউল গানকে অন্যতম শ্রেষ্ঠ সম্পদ হিসেবে ঘোষনা করে।

বাউল (Baul) শব্দটির উৎপত্তি নিয়ে মতান্তর রয়েছে। কেউ বলেন 'বাতুল' থেকে 'বাউল' হয়েছে, কারো মতে 'বজ্রী' থেকে কিংবা 'বজ্রকুল' থেকে বাউল শব্দটি এসেছে। কেউ কেউ বলেন 'আউল' শব্দ থেকে 'বাউল হয়েছে। ইতিহাসবিদদের মতে, সতেরো শতকে বাংলাদেশে বাউল মতের উদ্ভব হয়। এ মতের প্রবর্তক হলেন আউল চাঁদ ও মাধববিবি। বীরভদ্র নামে এক বৈষ্ণব মহাজন সেই সময়ে একে জনপ্রিয় করে তোলেন।

বাংলাদেশের কুষ্টিয়া-পাবনা এলাকা থেকে শুরু করে পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম-বোলপুর-জয়দেবকেন্দুলি পর্যন্ত বাউলদের বিস্তৃতি। বাউলদের মধ্যে গৃহী ও সন্ন্যাসী দুই প্রকারই রয়েছে। বাউলরা তাদের গুরুর আখড়ায় সাধনা করে। প্রতি বৎসর পৌষ সংক্রান্তির দিন বীরভূমের জয়দেব-কেন্দুলিতে বাউলদের একটি মেলা শুরু হয়, যা "জয়দেব বাউলমেলা" নামে বিখ্যাত।

তোমরা আমায় কী বুঝাইবা আমি পুইড়া হইছি কয়লা

ও আমি বুঝি গো বন্ধুয়ার পিরিতে কত জ্বালা

তোমরা আমায় কী বুঝাইবা আমি পুইড়া হইছি কয়লা
তোমরা আমার কী বুঝাইবা আমার অন্তর পুইড়া কয়লা
ও আমি জানি গো বন্ধুয়ার পিরিতে কত জ্বালা
ও আমি বুঝি গো বন্ধুয়ার পিরিতে কত জ্বালা।।

ওগো এলাহি তোমার মতো দরদী নাই

নাম স্মরণে ঘোর নিদানে চরণ ভিক্ষা চাই

ওগো এলাহি তোমার মতো দরদী নাই
নাম স্মরণে ঘোর নিদানে চরণ ভিক্ষা চাই।।

বন্ধু যদি হইতো নদীর জল

পিপাসাতে পান করিয়া পুড়া প্রাণ করতাম শীতল

বন্ধু যদি হইতো নদীর জল
আমার, বন্ধু যদি হইতো নদীর জল
পিপাসাতে পান করিয়া
পুড়া প্রাণ করতাম শীতল।।

বিষয় বিষে চঞ্চলা মন দিবা রজনী

মনকে বোঝালে বুঝ মানেনা ধর্মকাহিনী

বিষয় বিষে চঞ্চলা মন দিবা রজনী।
মনকে বোঝালে বুঝ মানেনা ধর্মকাহিনী।।

পড়ে ভূত আর হোসনে মনরায়

কোন হরফে কী ভেদ আছে নিহাজ করে জানতে হয়

পড়ে ভূত আর হোসনে মনরায়।
কোন হরফে কী ভেদ আছে নিহাজ করে জানতে হয়।।

পড়গা নামাজ জেনে শুনে

নিয়্যাত বাঁধগা মানুষ মক্কাপানে

পড়গা নামাজ জেনে শুনে
নিয়্যাত বাঁধগা মানুষ মক্কাপানে।।

ভালোবেসে কালো সাপা পুষেছিলাম

সারা জনম বিষে আমি জ্বলিয়া মরলাম

সারা জনম বিষে আমি জ্বলিয়া মরলাম
ভালোবেসে কালো সাপা পুষেছিলাম।।

দুর্বিন শাহ

দুর্বিন শাহ (জন্মঃ ২ নভেম্বর ১৯২০ মৃত্যুঃ ১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৭ ইং) বাংলাদেশের একজন মরমী গীতিকবি, বাংলা লোক সাহিত্যের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ভাষ্যকার, বাউলসাধক।

হক নাম বল রসনা

যে নাম স্মরণে রে মন যাবে জঠর যাতনা

হক নাম বল রসনা
যে নাম স্মরণে রে মন
যাবে জঠর যাতনা।।

আমি কি তাই জানলে সাধন সিদ্ধ হয়

আমি কথার অর্থ ভারি, আমি সে তো আমি নই

আমি কি তাই জানলে সাধন সিদ্ধি হয়।
আমি কথার অর্থ ভারি, আমি তো সে আমি নই।।

ফকিরি করবি ক্ষ্যাপা কোন রাগে

হিন্দু মুসলমান দুইজন দুইভাগে

ফকিরি করবি ক্ষেপা কোন রাগে।
হিন্দু মুসলমান দুইজন দুইভাগে।।

মামুন নদীয়া জনপ্রিয় গীতিকার ও সুরকার

মামুন নদীয়া (ইংরেজিঃ- Mamun Noida জন্মঃ- ১৮ই ফেব্রুয়ারী ১৯৬৪ - মৃত্যু: ৩১শে মে ২০০৭) তিনি ছিলেন বাংলারই এক নিভৃতচারী বাউল। প্রয়াত কণ্ঠ শিল্পী বৃহত্তর কুষ্টিয়ার এ প্রজন্মের একজন জনপ্রিয় বাউল কণ্ঠশিল্পী। সর্বদা ধবল রঙের গেরুয়া পরতেন। চশমা পরিহিত মুখটি ছিল শ্যামল নিষ্পাপ। কথাবার্তার ভঙ্গিটি অত্যন্ত বিনীত।

আমার পাগলা ঘোড়া রে

কই মানুষ কই লইয়া যাও

আমার পাগলা ঘোড়া রে
কই মানুষ কই লইয়া যাও।।

রসিক আমার মন বান্ধিয়া পিঞ্জর বানাইছে

সোনার ময়না ঘরে থুইয়া বাইরে তালা লাগাইছে

রসিক আমার মন বান্ধিয়া পিন্জর বানাইছে
সোনার ময়না ঘরে থুইয়া বাইরে তালা লাগাইছে।।

বাজার মেলায়ে তুমি বসে দোকানদার

তুমি দোকান তুমি দ্রব্য তুমি খরিদ্দার

বাজার মেলায়ে তুমি বসে দোকানদার
তুমি দোকান তুমি দ্রব্য তুমি খরিদ্দার।।

শোন বলিরে ও মন চাষা

জমি আবাদ না করে হইল কি দুঃখ দশা

শোন বলিরে ও মন চাষা
নিজেই হলি বুদ্ধিনাশা
জমি আবাদ না করে হইল কি দুঃখ দশা।।

সেই কালা চাঁদ নদে এসেছে

ও সে বাজিয়ে বাঁশি ফিরছে সদাই

ও সে বাজিয়ে বাঁশি ফিরছে সদাই
কুলবতীর কুলনাশে।।

দয়াল বাবা হযরত কদম আলী মস্তান (রহঃ)

দয়াল বাবা কদম আলী মস্তানের জন্ম বিক্রমপুরের ডহরী নওপাড়া। আস্তানা ছিল মরহুম সাত্তার বেপারী সাহেবের বাড়ি তৎকালীন দিঘলী বাজারের পূর্ব পাশে। এই পাগলের আবির্ভাব বিক্রমপুরের মানুষের জন্য ছিল আশির্বাদের মতো। বিভিন্ন রোগ আর মহামারিতে বিক্রমপুরের মানুষেরা ছিলো দিশেহারা।

এসো হে প্রভু নিরঞ্জন

এ ভব তরঙ্গ দেখে আতঙ্কেতে যায় জীবন

এ ভব তরঙ্গ দেখে
আতঙ্কেতে যায় জীবন
এসো হে প্রভু নিরঞ্জন।।

নাপাকে পাক হয় কেমনে

জন্ম বীজ যার নাপাক কয় মৌলভী গণে

নাপাকে পাক হয় কেমনে।।
জন্ম বীজ যার নাপাক কয় মৌলভী গণে।।

Page 1 of 21

Close

নতুন তথ্য

নতুন লালন গীতি

Subscribe Our Newsletter

welcome to our newsletter subscription

প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রকাশকঃ- সালেকউদ্দিন শেখ সুমন

Made in Bangla

Go to top